1. xsongbad@gmail.com : Harry Deb Nath : Harry Deb Nath
  2. tauhidcrt8@gmail.com : tauhidcrt8 :
কোপা আমেরিকা ২০২১: আর্জেন্টিনার হয়ে এই প্রথম শিরোপা উঠলো লিওনেল মেসির হাতে - Songbadjogot.com
শুক্রবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২২, ০১:৪৫ পূর্বাহ্ন
বিজ্ঞপ্তি:
  • Welcome To Our Website...* এন জি ও ‘আরবান সমিতি’ –মাইক্রো ক্রেডিট ফাইনান্সে জরুরী ভিত্তিতে কিছু সংখ্যক মহিলা/পুরুষ মাঠ কর্মী নিয়োগ দেয়া হবে। বয়স ২৫ উর্ধ্ব হতে হবে। আগ্রহী প্রার্থীদেরকে সরাসরি নিম্নোক্ত নাম্বারে যোগাযোগ করুনঃ ০১৩০১০৪১২৮৮  আমাদের অনলাইন নিউজ পোর্টালে বিজ্ঞাপন দিতে চাইলে এই নাম্বারে যোগাযোগ করুনঃ ০১৮১৫-৫৮৭৪১০

কোপা আমেরিকা ২০২১: আর্জেন্টিনার হয়ে এই প্রথম শিরোপা উঠলো লিওনেল মেসির হাতে

প্রতিবেদকের নাম
  • আপডেটের সময় : রবিবার, ১১ জুলাই, ২০২১
  • ১৩১ বার ভিউ

ব্রাজিলকে হারিয়ে ২৮ বছর পর কোন বড় আন্তর্জাতিক শিরোপা জিতলো আর্জেন্টিনা। মেসি পেলেন প্রথম আন্তর্জাতিক শিরোপা। অ্যানজেল ডি মারিয়ার করা একমাত্র গোলে কোপা আমেরিকার ফাইনালে লিড নেয় লিওনেল মেসির দল। ম্যাচের শুরু থেকে ব্রাজিল পায়ে বল রেখে গোল দেয়ার চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয়। রদ্রিগো ডি পলের দেয়া লং বল থেকে ডি মারিয়া নিখুঁতভাবে ব্রাজিলের গোলকিপার এডারসনের মাথার ওপর দিয়ে বল জালে পাঠিয়ে দেন। শেষ পর্যন্ত তারা ১-০ গোলে এগিয়ে থেকে জয় নিশ্চিত করে।

এটি লিওনেল মেসির প্রথম মেজর আন্তর্জাতিক শিরোপা। এর আগে ২০১৫ ও ২০১৬ সালে টানা দুটি কোপা আমেরিকায় আর্জেন্টিনা ফাইনালে গিয়েও হেরে যায়। ২০১৬ সালে কোপা আমেরিকার ফাইনালে পেনাল্টি শুটআউট থেকে গোল করতে ব্যর্থ হয়ে অবসরের ঘোষণাও দিয়েছিলেন লিওনেল মেসি। যদিও দ্রুতই ফিরে এসেছেন এবং পরবর্তীতে আর্জেন্টিনার অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি। শেষ পর্যন্ত কোপা আমেরিকা দিয়ে প্রথম কোন আন্তর্জাতিক ট্রফি জয়ের স্বাদ পেলেন সময়ের অন্যতম সেরা ফুটবলার লিওনেল মেসি।

ম্যাচের শেষে লিওনেল মেসি ও নেইমার একে অপরকে জড়িয়ে ধরেন। মাঠের যে কোণে আর্জেন্টিনার সমর্থকরা ছিলেন, সেখানে গিয়ে উল্লাসে মাতে আর্জেন্টিনার ফুটবলাররা। লিওনেল মেসিকে তুলে হাওয়ায় ভাসিয়ে উল্লাস করেন সতীর্থরা। কোপা আমেরিকার সেরা ফুটবলারের পুরষ্কার পেয়েছেন লিওনেল মেসি। কেমন ছিল ম্যাচটি ম্যাচে ৫৯ শতাংশ বল নিজেদের পায়ে রেখেছে ব্রাজিল, শটও নিয়েছে ১৩টি গোলে। কিন্তু লক্ষ্যে শট দুই দলের সমান দুটি করে। কোপা আমেরিকার অন্যান্য ম্যাচের মতো এই ম্যাচেও ফাউল হয়েছে প্রচুর, ব্রাজিল করেছে ২২টি, আর্জেন্টিনা ১৯টি ফাউল করেছে। ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধে ব্রাজিল বলের নিয়ন্ত্রণ রাখলেও আর্জেন্টিনার জমাট রক্ষণের তালা খুলতে পারেননি কেউ। রিচার্লিসন বল জালে জড়ান একবার, কিন্তু তিনি ছিলেন অফসাইড। আর্জেন্টিনার গোলরক্ষক এমিলিয়ানো মার্টিনেজ শেষদিকে ডি বক্সের ভেতরে গোল ঠেকিয়ে দেন।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই বিভাগের আরও খবর